ব্রেকিং

x

অবৈধভাবে গিজার উৎপাদন ও বিক্রয়ের অপরাধে ‘ইগা’ ব্যান্ডের কারখানা সিলগালা ও জরিমানা

রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩ | 63 বার

অবৈধভাবে গিজার উৎপাদন ও বিক্রয়ের অপরাধে ‘ইগা’ ব্যান্ডের কারখানা সিলগালা ও জরিমানা

পণ্যের মান প্রণয়ন ও নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই) থেকে পণ্যের মান সনদ/লাইসেন্স গ্রহণ ব্যতীত স্টোরেজ ওয়াটার হিটার (গিজার) বিক্রয় এবং বাজারজাত করে আসছিলো ইম্পেরিয়াল ইলেকট্রিক্যাল এন্ড গ্যাস এপ্লায়েন্স কোম্পানী ইগা ব্যান্ডের গিজার। বিএসটিআই’র বাধ্যতামূলক মান সনদের আওতাভুক্ত এ পণ্যটি মান সনদ গ্রহণ না করে গিজার উৎপাদন ও বাজারজাত করার অপরাধে আজ উক্ত কোম্পানিটি সিলগালা ও ২ (দুই) লক্ষ টাকা জরিমানা করে বিএসটিআই’র ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ঢাকা জেলার সাভার থানাধীন এলাকায় ডিএমপি পুলিশের সহযোগিতায় বিএসটিআই’র একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে বিএসটিআই লাইসেন্স গ্রহণ ব্যতীত পণ্য স্টোরেজ ওয়াটার হিটার (গিজার) বিক্রয় এবং বাজারজাত করার অপরাধে বিএসটিআই আইন, ২০১৮ অনুসারে ইম্পেরিয়াল ইলেকট্রিক্যাল এন্ড গ্যাস এপ্লায়েন্স কোম্পানী (ইগা ব্র্যান্ড), রাজফুলবাড়ীয়া, সাভার, ঢাকা প্রতিষ্ঠানটিকে টাকা ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) মাত্র এবং পণ্য মোড়কজাতকরণ সনদ গ্রহণ ব্যতীত একই পণ্য বিক্রয় এবং বাজারজাত করার অপরাধে ওজন ও পরিমাপ মানদন্ড আইন, ২০১৮ অনুসারে টাকা ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) মাত্র জরিমানা প্রদান করা হয়। প্রতিষ্ঠানটিকে উল্লিখিত দু’টি আইনে সর্বমোট টাকা ২,০০,০০০/- (দুই লক্ষ) মাত্র জরিমানা প্রদান করা হয়। একইসঙ্গে আদালত উক্ত অবৈধ কারখানাটি সিলগালা করে বন্ধ করে দেয়।

উল্লেখ্য যে, পণ্যের গুরুত্ব, ঝুঁকিসহ নানাবিধ বিষয় বিবেচনা করে সরকার বিভিন্ন সময়ে এসআরও জারীর মাধ্যমে এযাবৎ ২৭৩টি পণ্য বিএসটিআই’র বাধ্যতামূলক মান সনেদের আওতাভুক্ত করেছে। এসকল পণ্য উৎপাদন, বাজারজাত এবং বাণিজ্যিক প্রচারের জন্য বিএসটিআই’র মান সনদ গ্রহণ বাধ্যতামূলক। মানহীন এ ধরণের গিজার কিংবা ওয়াটার হিটারে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি থাকে।

বিএসটিআই’র বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইমরান হোসেনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। প্রসিকিউটরি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএসটিআই’র ফিল্ড অফিসার মোঃ রাশেদ আল মামুন এবং পরিদর্শক মোঃ মঈন উদ্দিন। ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সার্বিক সহযোগিতা করেন ফিল্ড অফিসার মোঃ খালেদ হোসেন।

জনস্বার্থে বিএসটিআই’র এ ধরণের অভিযান অব্যাহত আছে।

Development by: webnewsdesign.com