আইন অমান্য করে ভুয়া টেলিভিশন ও পত্রিকায় নিউজ করে চলছে চাঁদাবাজি

বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | 47 বার

আইন অমান্য করে ভুয়া টেলিভিশন ও পত্রিকায় নিউজ করে চলছে চাঁদাবাজি
অনুমোদনহীন আইপি টিভি

TV শব্দ টি দেখলে বা শুুুুুুনলেই সকলের মনে একটি ভাবনাই আসে যা সাধারন মানুুুষ সেটাকে টেলিভিশন  হিসেবেই জানে। নতুন নাম দেখলেই নতুন টেলিভিশন মনে করেন । এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে আইন অমান্য করে CNF TV নাম দিয়ে ভিসিটিং কার্ড ছাপিয়ে আর
ষ্টিকার বানিয়ে ঘুড়ে বেড়ায় পাড়া মহল্লায় । কিন্তু এমন আইপি টিভির আড়ালে আসল কাজ বাড়িতে তৈরি যৌন উত্তেজক ওষুধ তৈরি ও ছোট ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে চাঁদা আদায় ।

এসব কাজ করেই সমাজে নিজেকে বড় পত্রিকা ও টিভির সম্পাদক বলেদাবি করছেন পাবনায় খালেদ আহামেদ । বাড়ি: শায়েস্তা খাঁ, রোড: দঃ রাঘবপুর, পাবনা।

dhakarkagoj.com

খালেদ আহমেদের উত্থানঃ

খালেদ ছোট বেলা থেকেই কবিরাজ বাবার সাথে নিজ
বাড়িতে সালসা বানিয়ে সারাদেশের হাট গুলোতে গান বাজিয়ে বিক্রি করেতেন। বিক্রি বৃদ্ধির জন্য ড্যান্সার টিমও ভাড়া করতেন। পারিবারিক গোপন ঘটনার কারনে খালেদের মায়ের অপমৃত্যু হয় এরপর খালেদ বাবাকে ত্যাগ করে ঢাকায় লোকাল বাসের হেলপারি করতে থাকে। সেখানে টাকা চুরির অপরাধে বাসের মালিক ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করলে খালেদ পালিয়ে পাবনায় চলে আসে।

ঢাকায় থেকে কবিরাজির কোন ডিগ্রী নয় নিয়েছেন বাসের হেলপারির কাজ এবার অভিজ্ঞতা । কবিরাজ বাবাকে ছাড়াই দুই ভাই মিলে শুরু করে পুরোনো সেই কবিরাজি ব্যবসা ।

হালুয়ার/সালসার সাথে মিশিয়ে দেয় যৌন উত্তেজক এসএস পাউডার । স্থানীয় ঔষধ বিক্রেতাদের লোভনীয় কমিশন দিয়ে ক্রেতাদের কাছে এসব বিক্রয় করাতেন ।স্থানীয়দের ম‌্যানেজ করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ঘর ভাড়া নিয়ে চলছে অপকর্মের সব কাজ ।
হালুয়া/সালসা পাবনার বাইরে পাঠানো হয় কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে ।

সাংবাদিকতাকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করার জন্য প্রথমে একটি পত্রিকার হকারের কাজ করে । অল্পদিনেই সে নিজেকে সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দিতে শুরু করে।  বিভিন্ন জনের সাথে ছবিতুলে ফেসবুকে পোষ্ট দিতে থাকে,এতে তার ব্যবসার প্রতিষ্ঠানের নামের পরিচিতি ও ব‌্যবসায়িদের সাথে সুবিধা বাড়তে থাকে ।

আরও অগ্রগতির জন্য ৬ই ফেব্রুয়ারী কিছু ব্যক্তিকে দাওয়াত দিয়ে পালন করে CNF TV এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী যেখানেউপস্থিত সবার কাছে নিজেকে পরিচয় দেয়
তার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হিসেবে ।

এই অনুষ্ঠানের নামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে লক্ষাধিক টাকা আদায়েরও অভিযোগ পাওয়া যায়। এবং বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে, যা প্রকাশ‌্যে খবর নিলেই/শুনলেই বোঝা যাবে।

পাবনায় যে দৈনিক পত্রিকার প্রথম পাতায় সংবাদটি প্রকাশ হয় তার সম্পাদক ও
প্রকাশকের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয় নিম্নরুপঃ

প্রতিনিধি: CNF TV নামে কোনও টেলিভিশন বাংলাদেশে আছে কি?
সম্পাদকঃ আমার জানা নাই।
প্রতিনিধি: তাহলে প্রথম পাতায় এই সংবাদ ছাপালেন কেন?
সম্পাদকঃ আমাকে দাওয়াত দিয়েছিলো, আমি পরে চলে আসি, আমার খাওয়ার অফিসে পাঠিয়ে দেয়।
প্রতিনিধি: CNF TV ‘র কোনও বৈধ অনুমোদনের আদেশ আছে কি?
সম্পাদকঃ আমার জানা নাই। এগুলো আমার আপনার দেখার দায়িত্ব না, ও কি করল আপনার দেখে লাভ কি? ওগুলো দেখবে সরকার, ওটা দেখবে প্রশাসন।
প্রতিনিধি: তাহলে সাংবাদিকের দায়িত্ব কি?
এ প্রস্নের জবাবে সম্পাদক নিরব থাকেন।
খালেদ আহমেদের মোবাইল ফোনের কল লিস্ট ও স্থানীয় কুরিয়ার সার্ভিসের সাথে যোগাযোগ করলে তার ব্যাবসা ও চাঁদাবাজির অনেক তথ্য পাওয়া যাবে বলে বিজ্ঞ সাংবাদিকেরা মনে করেন।

Development by: webnewsdesign.com