রাজধানী শাহবাগে জলবায়ু ন্যায্যতার দাবিতে র‍্যালির অনুষ্ঠিত

জি-২০ এর উন্নয়ন পরিকল্পনা বুমেরাং হয়ে দেখা দেবে

শুক্রবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | 53 বার

জি-২০ এর উন্নয়ন পরিকল্পনা বুমেরাং হয়ে দেখা দেবে

জি-২০ দেশগুলোর আমাদের দেশে মানবিক বিপর্যয় ডেকে আনার অধিকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশের সমন্বয়ক শরীফ জামিল। তিনি বলেছেন, ‘এই অঞ্চলের মানুষের মনের অভিব্যক্তি ও অভিজ্ঞতা তারা যদি আমলে না নেয়, তাহলে অনেক ভুল করবে। তাদের উন্নয়ন পরিকল্পনা বুমেরাং হয়ে দেখা দেবে।’

শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর শাহবাগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে শরীফ জামিল এসব কথা বলেন। জি-২০ জোটের নেতাদের ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে এই কর্মসূচির আয়োজন করে আসিয়ান পিপলস মুভমেন্ট অন ডেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এপিএমডিডি)।

ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশের সমন্বয়ক বলেন, ‘তারা নিজেদের দেশে পরিবেশ দূষণকারী শিল্প কারখানা করবে না, অথচ তারা আমাদের দেশে চাপিয়ে দেবে, তা আমরা চাই না। আমরা ঋণ চাই না, জলবায়ু পরিবর্তনের ঐতিহাসিক ক্ষতিপূরণ চাই। আমাদের দেশের জলবায়ু বিপর্যয়ের জন্য তাদের যে দায়, সেগুলো যেন হয় ঐতিহাসিক ক্ষতিপূরণের ভিত্তিতে। আমরা চাই, তারা আমাদের জনশক্তিকে ব্যবহার করে স্থায়ীত্বশীল উন্নয়ন কর্মকান্ড গ্রহণ করতে আমাদের দেশকে সহযোগিতা করবে।’

 

 

 

 

আয়োজকেরা জানান, ‘এক পৃথিবী, এক পরিবার, এক ভবিষ্যৎ’ স্লোগানকে সামনে রেখে বিশ্বের শক্তিশালী অর্থনীতির ১৯টি দেশ ও ইইউ সমন্বয়ে গঠিত আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরাম জি-২০ এ বছরের ৯-১০ সেপ্টেম্বর ভারতে তাদের বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করতে যাচ্ছে। অপর্যাপ্ত তৎপরতার কারণে জি-২০ জোট তাদের প্রতিশ্রুত ইতিবাচক পরিবর্তন সাধনে বার বার ব্যর্থ হচ্ছে। ক্রমাগতভাবে, বিভিন্ন ধরণের দুর্বল নীতি গ্রহণের মাধ্যমে ঋণ সহায়তা, শুল্কনীতি, জ্বালানি-উৎস পরিবর্তন এবং জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার মতো বিষয়গুলোতে প্রত্যাশিত অবদান রাখতে জোটের ব্যর্থতা লক্ষ্য করা গেছে।

অনুষ্ঠানে মানববন্ধনের পাশাপাশি পরিবেশ বিষয়ক মূকাভিনয় প্রদর্শন করে ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকশন এবং বাংলাদেশ সাইকেল লেন বাস্তবায়ন পরিষদের প্রায় শতাধিক সাইকেলিস্ট একটি র‍্যালির আয়োজন করে।

কর্মসূচিতে সহযোগী সংগঠনের মধ্যে ছিল ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ, ইকুইটি বিডি, ইয়ুথ নেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস, সেন্টার ফর পার্টিসিপেটরি রিসার্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, ব্রতী, গ্লোবাল ল’থিংকার্স সোসাইটি, বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশন, সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলন।

অনুষ্ঠানে ব্রতীর প্রধান নির্বাহী শারমিন মুরশিদের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশনের সভাপতি এ এস এম বদরুল আলম, কোস্ট ফাউন্ডেশনের উপ-নির্বাহী পরিচালক সনৎ কুমার ভৌমিক, সিপিআরডি-এর প্রধান নির্বাহী মো. শামসুদ্দোহা, বাংলাদেশ প্রতিগযোগিতা কমিশনের সদস্য এম এস সিদ্দিকী, সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক নিখিল চন্দ্র ভদ্র,বাংলাদেশ সাইকেল লেন বাস্তবায়ন পরিষদের, সভাপতি, মো:আমিনুল ইসলাম টুববুস, গ্রীন পেজের সমন্বয়ক প্রকৌশলী মাহফুজুর রহমান
সহ অনেকে।

Development by: webnewsdesign.com