ব্রেকিং

x

জেদ্দায় ১৫ই আগষ্ট ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী ১০ সংগঠনের দোআ মাহফিল

শুক্রবার, ১৮ আগস্ট ২০২৩ | 191 বার

জেদ্দায় ১৫ই আগষ্ট ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী ১০ সংগঠনের দোআ মাহফিল
জেদ্দায় ১৫ই আগষ্ট ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী ১০ সংগঠনের দোআ মাহফিল

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর খুনিদের রক্ষায় ঘৃণ্য অপচেষ্টা ও ইনডেমনিটি আইন অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে খুনিদের রক্ষা ও ইতিহাস বিকৃত করেছে খোন্দকার মোশতাক বলে মন্তব্য করেন কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ নাজমুল হক।

গতকাল ১৭ই আগস্ট বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি আরবের জেদ্দাস্থ বদর কমিউনিটি সেন্টারে ১৫ই আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি বক্তব্যে মোহাম্মদ নাজমুল হক এই কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন দীর্ঘদিন বঙ্গবন্ধুর খুনের কথা বলা যায়নি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কথা বলা যেত না, ভুল ইতিহাস শিখিয়েছে আমাদের, আমরা খুব ভাগ্যবান যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মতো একজন নেতা পেয়েছি, যার বিচক্ষণতায় ইনডেমনিটি বাতিল করে খুনিদের ফাঁসি হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এই ছাড়াও তিনি প্রবাসীদের পেনশন ইস্কিম প্রবাসীদের জন্য একটি মাইলফলক বলে উল্লেখ করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মিনিস্টার শ্রম কাউন্সিলর কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশকে জানতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে তার জীবনী পাঠ করতে হবে।

বঙ্গবন্ধুর খুদা দারিদ্র্যতা মুক্ত স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে একটি উচ্চ আয়ের স্মার্ট দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন।

শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে প্রবাসীদের যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

এতে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী পরিষদ জেদ্দার সভাপতি  সারতাজুল আলম দিপু, সাধারণ সম্পাদক শামীম চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে ,এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দার কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ নাজমুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন, মিনিস্টার শ্রম কাজী এমদাদুল ইসলাম। ইসমাইল হোসেন, ওয়াজিউল্লাহ মিয়া,  হুমায়ুন, আতাউর রহমান ভূইয়া, কোরবান আলী বিশ্বাস, কাজী আব্দুল্লাহ, দেলোয়ার হোসেন সরকার, আতাউর রহমান মাসুদ, ইনভেস্টর একে আজাদ,  ইনভেস্টর মোজাম্মেল হোসেন, কুলিয়ারচর উপজেলার চেয়ারম্যান ইয়াছির সহ আওয়ামী পরিবারের ১০ সংগঠনের নেতাকর্মী ও জেদ্দা মক্কার অসংখ্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

পরে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫-আগস্টে নির্মমভাবে নিহত শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষদ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

Development by: webnewsdesign.com