ব্রেকিং

x

পবিত্র কুরআনকে বান্দার আরও অধিক নিকটবর্তী করার প্রচেষ্টা ‘দ্য নোবেল কুরআন’

সোমবার, ১২ জুন ২০২৩ | 366 বার

পবিত্র কুরআনকে বান্দার আরও অধিক নিকটবর্তী করার প্রচেষ্টা ‘দ্য নোবেল কুরআন’

পবিত্র কুরআনের ৬৮ সূরা আল কালামের ৫২ নম্বর আয়াতে আল্লাহ পাক বলেছেন-এটি (পবিত্র কুরআন) সমগ্র বিশ্বের জন্য উপদেশ’। ২ সূরা বাকারার ২ নম্বর আয়াতে আল্লাহ পাক বলেছেন ‘এটি সেই কিতাব, যাতে কোন সন্দেহ নেই, মুত্তাকিদের জন্য তা পথ নির্দেশ’। ৫৪ সূরা কামারের ২২ নম্বর আয়াতে আল্লাহ পাক বলেছেন-“আর অবশ্যই আমরা কুরআনকে উপদেশ গ্রহণের জন্য সহজ করে দিয়েছি, অতএব উপদেশ গ্রহণকারী কেউ আছে কি?”

সৌদি আরব সরকার প্রায় ৭৭টি ভাষায় পবিত্র কুরআন প্রকাশ ও মুদ্রণ করে থাকে। এ কুরআন প্রকাশ ও মুদ্রণের কাজ করে থাকে বাদশাহ ফাহদ কমপ্লেক্স ফর দ্য প্রিন্টিং অব দ্য হলি কুরআন (King Fahd Complex for the Printing of the Holy Quran)। এর মধ্যে একটি ভাষা হলো ইংরেজি। সারা বিশ্বে সৌদি সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় এ সংস্করণটি ব্যাপকভাবে প্রচলিত। এ অনুবাদের নাম দ্য নোবেল কুরআন (The Noble Quran)। এটি হজ যাত্রীদের বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়। এ গ্রন্থ’টি প্রতিবছর প্রায় ১ কোটি মুদ্রণ করা হয়। ইংরেজিতে এ অনুবাদ সম্পাদন করেছেন সৌদি আরবের মদিনা’ ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ তাকি উদ্দিন আল হিলালি এবং উক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল পরিচালক ডা. মুহাম্মদ মুহসিন খান। দ্য নোবেল কুরআন গ্রš’টি মদিনা বিশ্ববিদ্যালয় (University of Madina) ও সৌদি দার আল ইফতার (Saudi Dar al-Ifta) অনুমোদন সীল রয়েছে। অনুবাদ কমিটি প্রথমে ১৯৮৫ সালে প্রকাশিত হয়। এটি ইংরেজি ভাষা বিশ্বে সর্বো”চ বিতরণকৃত অনুবাদ। বাংলা ভাষায় এর অনুবাদ কর্মটি সম্পাদন করেছেন মো. রেজাউল করিম। বইটি পাঠে পাঠক নিম্নোক্তভাবে উপকৃত হবেন:-

১। অনুবাদের ভাষা সহজ সরল।
২। ব্যাপকভাবে বিষয়ভিত্তিক সূচি সন্নিবেশ করা হয়েছে।
৩। এতে তুলনামূলক ধর্মতত্ত¡ সংযোজন করা হয়েছে।
৪। এ অনুবাদের মাধ্যমে একটি আন্তর্জাতিক অনুবাদের বার্তা রয়েছে।
৫। এ অনুবাদে সংক্ষিপ্ত তাফসির সংযোজন করা হয়েছে।
৬। পবিত্র কুরআনের বাণী পাঠকের অধিক নিকটবর্তী করার প্রয়াস রয়েছে।

অনেক অনুবাদকের ভিড়ে এ অনুবাদ তাই অনন্য। প্রতিটি মুসলিমকে কুরআনের বাণী পাঠেয় হওয়া উচিৎ। জীবনাচরণের এমন কোন দিক নেই যার নির্দেশনা এখানে নেই। জনাব মো. রেজাউল করিম সে নির্দেশনা আরো সহজ করার চেষ্টা করেছেন। ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে প্রত্যেক মুসলিমের তা জানা প্রয়োজন। জনাব মো. রেজাউল করিম এ ক্ষেত্রে সাধুবাদ পাবারযোগ্য।

Development by: webnewsdesign.com