প্রবাসী শ্রমিকের বেতনের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে

মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | 109 বার

প্রবাসী শ্রমিকের বেতনের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে
প্রবাসী শ্রমিকের বেতনের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে মো: রিয়াজ মৃধা

সৌদি আরব থেকে মো: দুলাল তালুকদার নামের এক প্রবাসীর ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে এসেছে মো: রিয়াজ মৃধা, মো: আসলাম মৃধা ও মো: জামাল মিয়া নামের তিন বাংলাদেশী। দুলাল তালুকদারের সবচেয়ে কাছের ছিলেন রিয়াজ মৃধা আর তিনি এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রিয়াজও তার সহযোগীরা ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আসে।

সৌদি আরবে মো: দুলাল তালুকদার ও মো: রিয়াজ মৃধা এক সাথে ব্যবসা করতেন। দু’জনের ছিল পারিবারিক ঘনিষ্ঠতা আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রিয়াজ মৃধা ও তার দুই সহযোগি তারই ব্যবসায়িক অংশীদারের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে কাউকে না জানিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে চলে আসে। এ ঘটনায় নানা জটিলতায় ভুগছেন মো: দুলাল তালুকদার নামের আর এক বাংলাদেশী।

প্রবাসি শ্রমিকদের বেতনের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে টাকা নিয়ে পালিয়ে আসায় গত ৩০ জানুয়ারি ২৩ইং ৬৪ জন ভুক্তভোগী প্রবাসি শ্রমিক স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ সৌদি দুতাবাসের মাধ্যমে বাংলাদেশ মহা পুলিশ পরিদর্শক পুলিশ সদর দপ্তর বরাবরে প্রদান করেন। এই আবেদনে বিবাদী হিসেবে মো: রিজায় মৃধা পিতা জয়নাল মৃধা, সবুজ নগর, ৮নং ওয়ার্ড, মঠবাড়িয়া পৌরসভা, পিরোজপুর ও মো: আসলাম, কোটগাও কাজীর শাল, ৮ নং ওয়ার্ড, ইউনিয়ন কেয়াইন ৩, সিরাজদিখা, মুন্সিগঞ্জ ও মো জামাল মিয়ার নাম উল্লেখ করা হয়।
মো: দুলাল তালুকদার সৌদি আরবে থাকায় তার স্ত্রী মো: বিউটি খানম গত ১৫ অক্টোবর ২০ইং মঠবাড়িয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ।

অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন যে, বিবাদী মো: রিয়াজ মৃধা ও আমার স্বামী একত্রে সৌদি আরবে ব্যবসা বাণিজ্য করতেন। কিন্তু হঠাৎ রিয়াজ মৃধা কাউকে কিছু না বলিয়া প্রবাসি শ্রমিকদের বেতনের ৩২ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে চলে আসে। পরে রিয়াজ মৃধার বাড়ীতে গেলে তিনি আমার কথার জবাব না দিয়া আমাকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ মারপিট খুন ও জখমের নানা প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। পরে বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে তারাও সালিশে মিমাংশা করার চেষ্ঠা করেন কিন্তু বিবাদী কোন প্রকার সালিশ মানবে না বলিয়া আমাকে হুমকি প্রদান করে। তাই এ ব্যাপারে আমি মঠবাড়িয়া থানায় হাজির হইয়া একটি অভিযোগ দায়ের করি ।

বিষয়টি নিয়ে মো: রিয়াজ মৃধাকে একাধিক বার ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Development by: webnewsdesign.com