মুসাপুরে বৃদ্ধাসহ ৩ জনকে শাবল দিয়ে পিটিয়ে জখমকরে সোহেল মেম্বার গং

বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০২০ | 234 বার

মুসাপুরে বৃদ্ধাসহ ৩ জনকে শাবল দিয়ে পিটিয়ে জখমকরে সোহেল মেম্বার গং
মুসাপুরে বৃদ্ধাসহ ৩ জনকে শাবল দিয়ে পিটিয়ে জখমকরে সোহেল মেম্বার গং

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে জোরপূর্বক জায়গা দখলে ব্যার্থ হয়ে আমেলা (৫০)নামে এক বৃদ্ধাসহ ৩ জনকে লোহার শাবল দিয়ে প্রহার করেছে বিতর্কিত মেম্বার সোহেল ও তার ভাড়াটে গুন্ডারা। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে হাতে ব্যান্ডেজের কাপড় বেঁধে থানায় গিয়ে নিরীহ ওই বৃদ্ধার বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে হয়রানির চেষ্টা করলেও ঘটনার তদন্তে আসা পুলিশের মিলে ভিন্ন তথ্য। এ ঘটনা জানাজানি হলে এলাকায় নানা সমালোচনার সৃষ্টি করছে। এদিকে মেম্বারের প্রহারে আহত বৃদ্ধাকে গুরুতর অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতের পারিবারিক সূত্র জানায় লাঙ্গলবন্দ পিচ কামতাল এলাকার মৃত মোস্তফা মিয়ার ছেলে সোহেল রানা বিগত ৪বছর পূর্বে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার পদে নির্বাচনে প্রার্থী হয়। ওই নির্বাচনে দৌলতপুর গ্রামের মৃত আলমাস মিয়ার ছেলে সুরুজ মিয়া,মানিক হাজী ও তার পরিবারের সদস্যরা বিপরীত প্রার্থী বজলু মেম্বারের পক্ষে কাজ করে। নির্বাচনে জয়লাভের পর হতে সোহেল মেম্বার ওই পরিবারের উপর আক্রোশের জের ধরে প্রতিনিয়তই ক্ষতিসাধণের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। বিগত ২বছর আগেও এই পরিবারের উপর হামলা চালায়। এর ধারবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার বেলা ১টায় সোহেল রানা ওরফে সোহেল মেম্বার চলাচলের রাস্তার নাম করে তাদের জায়গা দখলের চেষ্টা চালায়। এতে বাধা দিলে সোহেল মেম্বার ভাড়াটে গুন্ডাদের নিয়ে ওই পরিবারের উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে সোহেল মেম্বার লোহার শাবল দিয়ে সৌদী প্রবাসী রহম আলী(৫৪),তার স্ত্রী আমেলা ও ভাতিজা তকবির হোসেন আরমানকে বেদম প্রহার করে। পরে আহতদের ডাক চিৎকারে আশ পাশের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহতদের ধরাধরি করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। সোহেল মেম্বারের সন্ত্রাসী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক আশু ব্যবস্থাগ্রহণের জন্য প্রশাসনের উর্দ্ধতন মহলের হস্থক্ষেপ কামনা করছে ।

Development by: webnewsdesign.com