ব্রেকিং

x

শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে লালমনিরহাটে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল

রবিবার, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | 93 বার

শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে লালমনিরহাটে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রোববার বিকেল থেকেই একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। অধ্যক্ষের কক্ষে কয়েকজন শিক্ষকের সামনে যিনি এ অশালীন আচরণ করেছেন তিনি আর কেউ নন, একজন কলেজ শিক্ষক। তাঁর নাম জাহাঙ্গীর আলম শাহীন। তিনি লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সাচিবিক ও অফিস ব্যবস্থাপনা বিষয়ের জেষ্ঠ্য প্রভাষক।

আজ রোববার দুপুরের দিকে অধ্যক্ষ শরওয়ার আলমের কক্ষে তিনি এ কান্ড ঘটান।

ভিডিওটি ফাঁস হওয়ার পর রোববার বিকেলে মহিষখোচা বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীদের একাংশ বিক্ষোভ মিছিল বের করে ওই শিক্ষকের শাস্তিসহ অপসারণ দাবি করেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, উত্তেজিত কলেজ শিক্ষক শাহীন নিজের প্যান্টের বেল্ট ও চেইন খুলে অধ্যক্ষের উদ্দেশ্যে বলছেন, ‘আপনাকে ন্যাংটা হয়ে দেখাবো…। তবে এসময় অধ্যক্ষের কক্ষে থাকা অপর শিক্ষকরা তাকে এ কাজ করা থেকে প্রতিহত করেন। পরে তিনি হাজিরা খাতায় সই করে সেখান থেকে বেরিয়ে যান।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোববার দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে কলেজে আসেন জাহাঙ্গীর আলম শাহীন। অথচ সকাল নয়টায় আসার কথা শিক্ষক-কর্মচারিদের। পরে অধ্যক্ষের কক্ষে ঢুকে সই করার জন্য হাজির খাতা চান ওই শিক্ষক। এসময় তাকে অধ্যক্ষ শরওয়ার আলম বলেন, “আপনি যতটার সময় এসেছেন ততটার সময় সই করেন। এতে রেগে গিয়ে প্যান্টের চেইন খোলার ঘটনা ঘটান তিনি। এ ঘটনার এসময় আরও কয়েকজন শিক্ষক-কর্মচারি উপস্থিত ছিলেন সেখানে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত সহকারী শিক্ষক আব্দুল জলিল বলেন, ‘কলেজ আগমনের টাইম অনুযায়ী হাজিরা খাতায় সই করতে বলায় রেগে যান।

শাহীন স্যার। এরপর বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে নিজের প্যান্টের চেইন খুলতে থাকেন তিনি। কিন্তু আমি তাতে বাঁধা দিয়ে সরিয়ে দিয়েছি।’

অপর প্রত্যক্ষদর্শী ক্রীড়া শিক্ষক আনিচুর রহমান বলেন, ‘ঘটনার শাহীন প্যান্টের বেল্ট ও হুক খুলে ফেলেন। একপর্যায়ে তিনি খোলারও চেষ্টার পাশাপাশি পিন্সিপ্যাল স্যারকে দেখে নেওয়ারও দেন।’

অপর প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষক একরামুল হক বলেন, জাহাঙ্গীর আলম শাহীনের এটা চরম অন্যায় হয়েছে। ফলে তাঁকে শাস্তির আওতায় আনা হোক।’

নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে জেষ্ঠ্য প্রভাষক মো. জাহাঙ্গীর আলম শাহীন বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে আমাকে চাকরিচ্যুতির জন্য আমার বিপক্ষে একটি পক্ষ উঠেপড়ে লেগেছে। পুরো অডিও-ভিডিও প্রকাশ করা হোক তাতে আমার দোষ প্রমাণিত হলে আমার শান্তি হবে।’

Development by: webnewsdesign.com